শুক্রবার , মে ২৪ ২০১৯

চুকনগরে অবৈধভাবে বৈদ্যুতিক মিটার স্থানান্তর করার সময় এক যুবকের করুন মৃত্যু


চুকনগরে অবৈধভাবে বৈদ্যুতিক মিটার স্থানান্তর করার সময় এক যুবকের করুন মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার কুলবাড়িয়া গ্রামের আলতাফ হোসেন শেষের বাড়িতে এই ঘঁনাটি ঘটে। মৃত যুবকের নাম আবু তাহের (২২)। তিনি উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের আফসার উদ্দিন গাজীর পুত্র। তিনি তার স্ত্রী ও এক সন্তানকে নিয়ে কুলবাড়িয়া ওয়াপদার পার্শ্বে খাস জমিতে বসবাস করেন।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র জানায়, কুলবাড়িয়া গ্রামের শামছুর শেখের পুত্র আলতাফ হোসেন তার পরিত্যক্ত গৃহ থেকে অবৈধভাবে একটি বৈদ্যুতিক মিটার স্থানান্তর করে নতুন গৃহে লাগানোর জন্যে বিদ্যুতের সামান্য কাজ জানা আবু তাহেরকে বৃহস্পতিবার ভোওে ডেকে নিয়ে আসেন। তাহের মাটির দেয়ালে লাগানো মিটার থেকে মেইন সুইজে সংযুক্ত তারটি আপসারন করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ঠ হন এবং কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই তিনি মৃত্যুও কোলে ঢলে পড়েন।

আলতাপের স্ত্রী হোসনে আরা বেগম বলেন, মিটারটি আমরা ব্যবহার করতাম, বাড়ি পরিবর্তন করার কারনে মিটারটি সরিয়ে নতুন বাড়িতে লাগানোর জন্যে তাকে ডেকে আনা হয়। এলাকার ইলেকট্রিশিয়ান মফিজুর রহমান বলেন চলতি মাসের ১ তারিখে আলতাফ বিষয়টি নিয়ে আমার সাথে কথা বলেন।

এ সময় আমি তাকে অফিসে গিয়ে ডিসি/আরসি চার্জ বাবদ ১২০০ টাকা জমা দিয়ে আসতে বলি। তখন তিনি আমাকে অল্প কিছু টাকা নিয়ে অবৈধ পন্থায় মিটারটি স্থানান্তর কওে দিতে বললে আমি অপারগতা প্রকাশ করি।

এরপর তিনি আর আমার কাছে আসেননি। দূর্হটনার পরে খূলনা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির চুকনগর অভিযোগ কেন্দ্রের ইনচার্জ সুফল কুমার পাল ও মাগুরাঘোনা পুলিশ ফাড়ি ইনচার্জ উপ পরিদর্শক জাকারিয়া হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এব্যাপারে ডুমুরিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু হয়েছে। এবং ময়না তদন্তের জন্যে লাশ মর্গে প্রেরন করা হয়েছে বলে জানান ডুমুরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম।

শেয়ার