মঙ্গলবার , জুন ১৮ ২০১৯
ব্রেকিং নিউজ

৩ বছরে সুন্দরবনে বাঘ বেড়েছে ৮টি

বন বিভাগের জরিপ


বাংলাদেশের সুন্দরবন অংশে গত তিন বছরে বাঘের সংখ্যা বেড়েছে ৮টি। ২০১৫ সালে সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ছিল ১০৬টি। বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ম্যানগ্রোভ বন সুন্দরবনে মোট বাঘের সংখ্যা ১১৪টি।

বুধবার (২২ মে) দুপুরে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের আগারগাঁওয়ে বন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে সুন্দরবনে বাঘ জরিপের ফলাফল প্রকাশ ও রিপোর্টের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান পরিবেশ ও বনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে ২০১৮ সালের ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত মোট চারটি ধাপে তিনটি ব্লকে ১ হাজার ৬ শত ৫৬ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় ক্যামেরা বসিয়ে জরিপ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। ২শ ৪৯ দিন ধরে পরিচালিত জরিপে ৬৩টি পূর্ণ বয়স্ক বাঘ, ৪টি জুভেনাইল বাঘ (১২-১৪ মাস বয়সী) এবং ৫টি বাঘের বাচ্চার (০-১২ মাস বয়সী) ২৪৬৬টি ছবি পেয়েছে। সুন্দরবনে বাঘের বিচরণ ক্ষেত্র ৪৪৬৪ কিলোমিটার এলাকাকে আপেক্ষিক ঘনত্ব দিয়ে গুণ করে বাঘের সংখ্যা হিসাব করা হয়েছে ১১৪টি।

এছাড়া এসইসিআর মডেলে তথ্য বিশ্লেষণ বলছে, সুন্দরবনে প্রতি ১০০ বর্গকিলোমিটারে বাঘের আপেক্ষিক ঘনত্ব পাওয়া যায় ২ দশমিক ৫৫ + ০ দশমিক ৩২।

এ দিকে বন বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, ২০০১ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ৩৫টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে স্বাভাবিকভাবে মারা গেছে মাত্র ১০টি। বাকি ২৫টির মধ্যে ১৪টি বাঘ পিটিয়ে মেরেছেন স্থানীয় জনতা, ১০টি নিহত হয়েছে শিকারিদের হাতে এবং একটি নিহত হয়েছে ২০০৭ সালের সিডরে।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, সচিব আবদুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব ড. মো. বিল্লাল হোসেন, প্রধান বন সংরক্ষক মোহাম্মদ সফিউল আলম চৌধুরী প্রমুখ।

শেয়ার