মঙ্গলবার , জুন ১৮ ২০১৯
ব্রেকিং নিউজ

মেহেদির নকশায় ঈদ আনন্দ


ঈদ সাজে পূর্ণতা দেয় মেহেদির রং। ছোট -বড় সব বয়সের মেয়েদের কাছেই হাতে মেহেদি লাগানোর সময় থেকেই শুরু হয় ঈদ ‍উৎসব। সব কেনাকাটা শেষ, সবাই ছুটছেন পার্লারে, শেষ সময়ে নিজেকে আরও একটু সুন্দর করার চেষ্টা। এবার পালা মেহেদি লাগানোর।

বাড়িতেও মেহেদি লাগাতে পারেন। মার্কেটেগুলোতে রাঙাপরি, সাজগোল্ড, লিজান, আলমাস, আড়ং, মমতাজ, এলিট, শাহজাদী, লিজানসহ বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মেহেদি পাওয়া যাচ্ছে। এগুলোর দাম ৫০ থেকে ৭০ টাকার মধ্যে। নকশার সুবিধার জন্য প্রত্যেক টিউবের সাথে ছোট নকশা বই থাকে।

মেহেদির নকশায় ফুল, পাতা ডিজাইনের সঙ্গে ক্যালিগ্রাফিক, চরকা, কলকা, ময়ূর ও জ্যামিতিক মোটিফ চলছে এবার। হাতে ছোট ছোট মোটিফে একটু হালকা নকশা যেমন চলবে, তেমনি অনেকে দুই হাত ভরে ঘন করেও মেহেদি লাগাতে পারেন। নখের নিচ থেকে শুরু করে হাতের কবজি পর্যন্ত লম্বাটে ছিমছাম নকশা করা যেতে পারে। চাইলে কবজির নিচ থেকে বৃত্তাকারে পেঁচিয়ে নকশা বাড়াতে পারেন। আবার সব আঙুল নকশায় ভরাট করে যেকোনো একটি আঙুল ধরে পছন্দমতো নকশা বাড়িয়ে কবজি পর্যন্ত নেওয়া যেতে পারে।

পার্লারে শিশুদের মেহেদির জন্য খরচ পড়ছে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা। বড়দের ১৫০০ থেকে ২০০০ টাকা।অনেকের অ্যালার্জির সমস্যা থাকে। বাজারের মেহেদি লাগালে র্যাশ দেখা দেয়। তাই সচেতন থাকতে হবে। বিশেষ করে শিশুদের হাতে মেহেদি লাগাতে নিতে হবে বাড়তি সতর্কতা।

মাত্র ২-৫ মিনিটে রং হয়, এমন চটকদার বিজ্ঞাপনের এই নকল মেহেদি না নিয়ে অবশ্যই ভালো ব্র্যান্ডের আসল মেহেদি ব্যবহার করুন।

 রং যেন দ্রুত চলে না যায় কিংবা হালকা না হয়, সেজন্য ঈদের আগে পরে কয়েক দিন সাবান এবং পানি কম ব্যবহার করুন।

শেয়ার